সাত সকালে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক বাইক আরোহী

সাত সকালে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক বাইক আরোহী

সাত সকালে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক বাইক আরোহী। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুইজন। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া সোনামুখী থানা এলাকার জুনসরা বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায়। ঘটনাটি ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। করা হয় বেশ কিছুক্ষণ পর অবরোধও।


স্থানীয় সূত্রে খবর, গত তিনদিন আগে অর্থাৎ বুধবার রাতে স্থানীয় একটি কালী মন্দিরে সোনামুখী থানার জুনসরা গ্রামের বছর ৩৫ এর ডেকোরেটার্স ব্যবসায়ী মহাদেব নন্দী সঙ্গে বিয়ে হয় দিল্লির নিবাসী আশা সিংয়ের। কোন একটি কারণ নিয়ে বিয়ের দিন থেকেই অশান্তি শুরু হয় দুই পরিবারের মধ্যে।
স্থানীয় এবং প্রতিবেশী সূত্রে খবর, মেয়েটির পূর্ব বিবাহিতা। এবং তার স্বামী এখনো বর্তমান রয়েছে। এই অবস্থায় স্ত্রী আরেকটি বিয়ে করার কথা স্বামী জানতে পারাতেই অশান্তির সূত্রপাত।


আজ ভোর নাগাদ স্ত্রী এবং দিদা শাশুড়ীকে সঙ্গে নিয়ে একটি বাইকে করে মহাদেব নন্দীর নববিবাহিত স্ত্রী কে তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে নিয়ে যাচ্ছিলেন এমনটাই দাবি স্থানীয়দের। সোনামুখী থানার মাস্টারডাঙ্গা এলাকায় স্ত্রী আশা সিং এর মামার বাড়ি। স্থানীয়দের অভিযোগ মেয়ের দিদা এবং মেয়ে মিলে পরিকল্পিত ভাবে বাইক থেকে ঠেলে ফেলে দেয় মহাদেব নন্দী কে।

উল্টো দিক বর্ধমান থেকে আসা একটি ডাক বিভাগের পার্সেল পিকআপ ভ্যানের চাকায় পড়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মহাদেব নন্দীর। এরপরে উপযুক্ত শাস্তি এবং দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে স্থানীয় মানুষজন বেশ কিছুক্ষণ পথ অবরোধ করে। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে পাঠায়। এই ঘটনায় আহত আশা সিং এবং তার দিদা কে পুলিশ উদ্ধার করে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে চিকিৎসার জন্য। পুলিশ আসা সিং-এর বাবা এবং দাদু কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে।