হাতে আর কয়েক দিন তার পরেরি রাজ্যে হতে চলেছে ত্রীশতর পঞ্চায়েত নির্বাচন। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ডান কি বাম প্রতিটি রাজনৈতিক দলের প্রচার তুঙ্গে।এই নির্বাচনে কেউ আছে প্রবীন তো কেউ নবীন। প্রবীনরা নিজেদের অভিগ্যতাকে কাজে লাগাছে আবার প্রবীন রা নিজেদের পরিবারের লোকেদের রাজনৈতিক অভিগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে প্রচারের নেমেছে। এমনি এক  উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের প্রবীন তৃনমূল প্রার্থি  দীপা সরকার।  তিনি এবারে কালিয়াগঞ্জের বরুনা গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থি হিসাবে দারিয়েছেন। তিনি এত দিন রাজনৈতিক সম্পর্কে কিছুই জানতে না। তার স্বামী হীরন্ময় সরকার ( বাপ্পা )  তৃনমূলের এক জন অভিগ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্য। তার স্বামীর অভিগত্যাকে কাজে লাগিয়ে দলীয় কর্মিদের সাথে নিয়ে রোদ ও গ্রামের কাচা কাদা রাস্তা অতিক্রম করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করছেন। গ্রামের লোকেদের বোঝাচ্ছেন কেন তৃনমূল কংগ্রেসকে ভোট দিবেন। ভোট দিয়ে তাদের জয় যুক্ত করলে গ্রামের রাস্তা থেকে শুরু করে পানীয় জল সহ সব ধরনের সুবিধা পাবে তারা। বিরোধীদের ভোট দিয়ে কোন লাভ নেই কারন রাজ্যে তৃনমূল কংগ্রেস রয়েছে। একমাত্র তৃনমূল কংগ্রেস পারবে রাজ্যের সাথে সাথে গ্রাম গঞ্জের সার্বিক উন্নয়ন করতে ।

এদিন পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থি দীপা সরকার জানান,বিগত দিনে এই অঞ্চলের উন্নয়ন বলতে কিছুই হয়নি। প্রধান সমস্যা রাস্তা যা অল্প বৃষ্টিতে চলাচল অযগ্য হয়ে পড়ে।তার সাথে বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যস্থা নেই। তিনি জয়ী হয়ে আসলে এই দুই জলন্ত সমস্যার সমাধান করবে। তিনি প্রাচারে বেরিয়ে যেভাবে সারা পাচ্ছেন তাতে করে তিনি ১০০ শতাংশ আশাবাদী জয়ের দিক থেকে। ছবি ও তথ্য– রেখা রায়,উত্তর দিনাজপুর