পূর্ব বর্ধমান জেলায় শহর ও বিস্তীর্ণ অঞ্চকে বন্ধের সমর্থনে রাস্তায় নামল বাম সংগঠন

পূর্ব বর্ধমান:- সারা রাজ্যের পাশাপাশি পূর্ব বর্ধমান জেলায় বর্ধমান শহর ও চারটি মহকুমার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে বন্ধের সমর্থনের রাস্তায় নামল বাম সংগঠন।

কার্যতঃ সকাল থেকে ধর্মঘটের তেমন কোন প্রভাব পড়েনি।সব্জী বাজার খোলা, চলছে ট্রেন। বর্ধমান শহরের তেঁতুলতলা বাজার,স্টেশন বাজার,কালনাগেট, উদয়পল্লী বাজারে অন্যান্য দিনের মতই সকালে সব্জী বাজার বসেছিল।পাশাপাশি বর্ধমান হাওড়া মেইন ও কর্ড শাখায় ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক ছিল।
কিন্তু বেলা বাড়তেই বামেরা রাস্তায় নেমে মিছিল করে বন্ধ করার আহ্ববান করেন।
অন্যদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনা মহকুমায় রেল অবরোধে সামিল বামেরা ,কালনা শহরে আজ সকাল থেকেই বাম সংগঠন রাস্তায় নেমে বন্ধ সফলের ডাক দিয়ে মিছিল করছেন।
তবে জেলায় বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটেনি এই মুহূর্তে।
তারা প্রথমে একটি মিছিল বের করে মিছিলটি শুরু হয় দলীয় কার্যালয় থেকে। গোটা ভাতার বাজার পরিক্রমা করে এরপর কামার পাড়া বাস স্ট্যান্ডের কাছে তারা পথ অবরোধ করে। ভাতার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের অবরোধ তুলে দেয়। পরে তারা ভাতার রেলস্টেশনে যায় এবং রেল অবরোধ করে। বিক্ষোভ দেখাই বেশকিছু ধরে। রেল চলাচল ব্যাহত করে ।যাত্রীদের অনুরোধেই তুলে নেয়া হয় অবরোধ। সবমিলিয়ে বন্ধের সমর্থনে সকাল থেকেই রাস্তায় নেমে পড়েছে বাম সংগঠনের কর্মীরা।
অপরদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি বন্ধের কোনো প্রভাব পড়েনি ভাতারে। এ বিষয়ে জানালেন ভাতার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি জুলফিকার আলী।

অন্যদিকে কাটোয়ায় ধর্মঘট সফল করতে সকাল থেকেই রাস্তায় নামে সিপিএমের কর্মীরা। পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়া ২নং ব্লকের সিঙ্গি মোড়ে বন্ধের সমর্থনে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভে সামিল হয় সিপিএমের কর্মীরা। আটকে দেওয়া হয় বর্ধমান ও কাটোয়া গামী লরি ও চারচাকা গাড়ি। যদিও পরে কাটোয়া থানার পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। সিপিএমের বিক্ষোভের শেষে সিঙ্গি মোড় থেকে মেঝায়ারী পর্যন্ত একটি মিছিল করা হয়।

রাহুল রায় ও আমজাদ আলীর রিপোর্ট পূর্ব বর্ধমান